গরমের দিনে নারকেলের দুধ খাবেন যে ৫টি কারণে

গরম পড়লেই শরীরে পানির চাহিদা বাড়ে। উচ্চ রক্তচাপ কমানোসহ তৃষ্ণা মেটাতে নারকেল দুধ দারুণ কার্যকর উপায় হতে পারে। এ দুধ খেলে শরীর ঠান্ডা হয় এবং আর্দ্র থাকে। তাই যারা গরমে আম বা স্ট্রবেরির শরবত তৈরি করবেন, তাঁরা নারকেল দুধ ব্যবহার করতে পারবেন। এর বাইরে ওজন কমানোর ক্ষেত্রেও এ দুধ উপকারী। যারা ল্যাকটোজ সহ্য করতে পারেন না, তাদের জন্য দারুণ বিকল্প এটি। এটি মস্তিষ্কের জন্যও দারুণ উপকারী। এতে ব্যথানাশক উপাদানও আছে। এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে নারকেল দুধের আরও কিছু গুণের কথা উঠে এসেছে। জেনে নিন এসব গুণ সম্পর্কে।

১. গরমের আরাম: গরমে হিট স্ট্রোক, হৃদ্‌যন্ত্রের সমস্যা, ক্লান্তি, পেশি ব্যথার মতো নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। নারকেল দুধ শরীরের জন্য ইলেকট্রোলাইট হিসেবে কাজ করে। ইলেকট্রোলাইটের সুষম ভারসাম্য শরীরের কোষ ও অঙ্গপ্রত্যঙ্গের স্বাভাবিক কার্যক্রম ঠিক রাখে। তাই গরমে আরাম পেতে নারিকেল দুধ হতে পারে চমৎকার পানীয়।

২. সহজে হজম: অনেকেই দুধ খেতে পারেন না, খেলেও সহজে হজম হয় না। আবার অনেকে দুধ খেতে পছন্দও করে না। তাই যাঁরা ল্যাকটোজ বা অন্য দুধ খেতে পারেন না, তাঁদের জন্য এটি দারুণ বিকল্প এই নারকেল দুধ। নারকেল দুধ খুব সহজে হজম হয়ে যায় এবং কোনো ধরণের অস্বস্তি তৈরি করে না।

৩. রক্তচাপ কমায়: উচ্চ রক্তচাপের রোগীরাও নারকেল দুধ খেতে পারেন চাইলেই। এই দুধ রক্তনালীতে রক্ত চলাচল বাধাহীন করতে সাহায্য করে। আর তাছাড়াও এতে রয়েছে দেহের জন্য প্রয়োজনীয় খনিজ উপাদান পটাশিয়াম, যা রক্তচাপ কমাতে দারুণ কার্যকর উপাদান।

৪. রক্তস্বল্পতা দূর করে: রক্তস্বল্পতায় আক্রান্ত রোগীদের জন্য এটি এক চমৎকার পানীয়।  নারকেল দুধে আছে প্রচুর আয়রন, যা রক্তাল্পতা দূর করতে সাহায্য করে। রক্তস্বল্পতা দূর করতে নারকেল দুধ অন্যান্য আয়রনযুক্ত খাবারের মতোই দেহে রক্তের পরিমাণ বৃদ্ধি করে।  তাই রক্তস্বল্পতার রোগীদের এই পানীয়টি নিয়মিত পান করা উচিৎ।

৫. ওজন কমায়: যারা ওজন নিয়ে চিন্তিত তারা নারকেল দুধের প্রতি নজর দিতে পারেন।  নারকেল দুধে আছে প্রচুর ডায়েটারি ফাইবার, যা পেট ভরা রাখে এবং অতিরিক্ত খাওয়া কমাতে পারে। প্রতিদিন একবেলা করে নারকেল দুধ পান করলে হজমশক্তিও বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। তাই যারা বাড়তি ওজন নিয়ে সমস্যায় ভুগছেন তারা নিয়মিত নারকেল দুখ খেয়ে দেখুন, উপকার মিলবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *